১৯ এপ্রিল ২০১৮, ৬ বৈশাখ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
English Site Archive Login
 
Space For Ads
MENU
MENU
JOBAIDBD.COM

উন্নয়নশীলের তালিকায় এবারই উঠবে বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬ জানুয়ারী, ২০১৮ ০৯:৪৫ এ. এম. জেনিউজ বিডি ডট কম


বিশেষজ্ঞরা বলছেন, স্বপ্লোন্নত দেশের (এলডিসি) তালিকা থেকে চলতি বছরই বের হবে বাংলাদেশ। এর জন্য নির্ধারিত তিন সূচকের দুটিতে সফলতা এসেছে আগেই। সূচক দুটি হচ্ছে- মাথাপিছু জাতীয় আয় ও অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা। আরেকটি মানবসম্পদ সূচক। এ শর্তও চলতি বছরের মধ্যে পূরণ হবে।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে বৃহস্পতিবার ‘রিবেজিং অ্যান্ড রিভিশন অব জিডিপি: বাংলাদেশ পারসপেক্টিভ’ শীর্ষক এক সেমিনারের আয়োজন করে পরিকল্পনা বিভাগ। সেমিনারে এমনটিই জানান বিশেষজ্ঞরা।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ এবং যুক্তরাজ্যের আলস্টার ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক এসআর ওসমানি।

এলডিসির তালিকা থেকে বেরিয়ে দ্রুতই বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের অনেকগুলো মানদণ্ড অর্জন করতে পারবে জানান অর্থনীতিবিদ ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘নানা সীমাবদ্ধতার মধ্যে কীভাবে বাংলাদেশের এমন উন্নতি ঘটেছে, তা আমার কাছে রহস্য। এভাবে চলতে থাকলে এলডিসির তালিকা থেকে বেরিয়ে দ্রুতই বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের অনেকগুলো মানদণ্ড অর্জনে সক্ষম হবে’।

পরিকল্পনা সচিব জিয়াউল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারটি সঞ্চালনা করেন পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য (জ্যেষ্ঠ সচিব) ড. শামসুল আলম। তিনি বলেন, এলডিসি থেকে বেরোনোর জন্য তিনটি সূচকের মধ্যে দুটি অর্জন প্রয়োজন। অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা ও মাথাপিছু আয়ের সূচকে আগেই উত্তীর্ণ হয়েছে বাংলাদেশ। এখন বাকি মানবসম্পদ। বাংলাদেশ ২০১৮ সালের মধ্যে এলডিসি থেকে বের হওয়ার প্রাথমিক যোগ্যতা অর্জন করবে।

সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ২০১৯ সালের মধ্যেই জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে। বিনিয়োগ না বাড়িয়েও প্রবৃদ্ধি বাড়ানো যায়। এক্ষেত্রে উত্পাদনশীলতা বাড়াতে হবে। দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য শিক্ষাক্ষেত্রে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে হবে। উত্পাদনশীলতা ও দক্ষতা বাড়ানো গেলে ২০১৯ সালের মধ্যেই জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে।

জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার নিয়ে কথা বলেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আরেক উপদেষ্টা এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম। তিনি বলেন, কয়েক বছর ধরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি বাড়ছে এবং ৭ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে। কিন্তু মোট জিডিপির অনুপাতে যে হারে বিনিয়োগ হচ্ছে, তাতে প্রবৃদ্ধি এত হওয়ার কথা নয়।

ব্রেকিং নিউজ: